PVC Pipe তৈরির ব্যবসা শুরু করে প্রতিমাসে আই করুন ১ লক্ষ টাকা।

আপনাদের দৈনন্দিন ইনকামের সাথে যদি আনার আরো কিছু ইনকাম করতে চান, অথবা আপনারা যদি আপনাদের প্রধান ইনকাম সোর্স হিসাবে কোনো ব্যবসা শুরু করতে চান তাহলে আপনারা একটি বার পিভিসি পাইপ তৈরির ব্যবসা (PVC pipe manufacturing business) -এর দিকে দেখতে পারেন।পিভিসি পাইপ অর্থাৎ যে পাইপ আপনারা বাড়িতে এবং অন্যান্য জায়গায় ব্যাবহার হতে দেখেন, জল নিকাশি বা পানিও জলের সাপ্লাই দেওয়ার জন্য।

এবং বর্তমান সময়ে আপনারা হয়তো লক্ষ করে থাকবেন বাজারে এই পিভিসি পাইপের প্রচুর পরিমান ডিম্যান্ড।তাই এই ডিম্যান্ড টাকে আপনারা কাজে লাগাতে পারেন। এই ব্যবসা শুরু করার জন্য আপনাদের কত টাকা খরচ হবে, কত ইনকাম এবং কি কি আপনাদের করতে সব বিশদে নিচে দেওয়া হলো।

আরো পড়ুন:- কি ভাবে মৎস চাষের ব্যবসা শুরু করবেন?

কি ভাবে এই ব্যবসা শুরু করবেন?

এই এই ব্যবসা শুরু করার জন্য বেশ কিছু বড় বড় মেশিন এর প্রয়োজন আছে। যেগুলোর সম্বন্ধে আপনাদের প্রথমেই জানিয়ে রাখা দরকার,  এবং আপনাদেরও দরকার এ বিষয়ে জেনে নেওয়া।তাছাড়া যেহেতু এটি একটি বড় ব্যবসায়ী তাই এতে কিছু পারমিশন এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।

প্রয়োজনীয় মেশিন

পিভিসি পাইপ ম্যানুফ্যাকচারিং ব্যবসা শুরু করতে আপনাদের টি মেশিন এবং কিছু অন্যান্য উপকরণের প্রয়োজন হবে, এবং সেগুলির সমন্ধে বিশদে নিচে দেওয়া হলো।

মেটেরিয়াল মিক্সার

এই পাইপ বানানোর জন্য প্রথমেই আপনাদের একটি মেটেরিয়াল মিক্সার লাগবে যা অনেক ধরণের হয়ে থাকে এবং অনেক ক্যাপাসিটির হয়ে থাকে।যদি আপনারা কুলিং সিস্টিম সংযুক্ত এমন মিক্সার কেনেন তাহলে আপনাদের আর আলাদা করে কোনো কুলিং সিস্টেম লাগাতে হবে না।

পাইপ এক্সট্রুডার মেশিন

এই মেশিনের মাধ্যমেই মেইন প্রোডাকশন মেশিনের থেকে পাইপ রেডি হয়ে ঠান্ডা হয়ে বেরিয়ে আসে। এই মেশিনের মধ্যে থাকে কিছু ভ্যাকিউম সিস্টেম, কুলিং ট্যাংক, কিছু মোটর এবং যাবতীয় কন্ট্রোলিং সিস্টেম।

স্ক্যাপার এবং গ্রাইন্ডার

এছাড়াও প্রয়োজন স্ক্যাপার এবং গ্রাইন্ডার মেশিনের।

ওয়েটিং মেশিনের

বিভিন্ন প্রোডাক্ট, কেমিকাল এবং কাঁচামাল ওজন করে তা সঠিক মাত্রায় মিশিয়ে একটি উন্নত মানের পিভিসি পাইপ তৈরী করতে আপনাদের লাগবে একটি ওয়েটিং মেশিন।

ডাই

বিভিন্ন মাপের পিভিসি পাইপ তৈরী করতে লাগবে সেই মাপের ডাই। ডাই ছাড়া আপনারা বিভিন্ন মাপের পাইপ তৈরী করতে পারবেননা তাই এটি খুবই গুরুত্ব পূর্ণ জিনিস।

পাইপ রাখার জন্য র্্যাক

আপনাদের তৈরী পাইপ বিক্রির আগে ভালো ভাবে গচ্ছিত করে রাখার জন্য আপনাদের অনেকটা জায়গা লাগবে, তাছাড়াও আপনাদের কিছু র্্যাক তৈরী করে নিতে পাইপ গুলি রাখার জন্য নাহলে পাইপ গুলি গড়িয়ে যেতে পারে।

অন্যান্য উপকরণ

এছাড়াও আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ জিনিস আপনাদের প্রয়োজন হবে যেমন- জলের ট্যাংক, কেমিক্যাল টেস্ট করার জন্য একটি ল্যাবরেটরি, একটি ওভার হেড জলের ট্যাংক।গ্রিস এবং তেল দেওয়ার জন্য কিছু ইকুইপমেন্ট, আপনাদের প্রোডাক্ট টেস্ট করবার জন্য কিছু টেস্টিং মেশিন।এছাড়াও আপনাদের লাগবে একটি রিসাইকেলিং পাম্প।

কাঁচামাল

পিভিসি পাইপ তৈরীকরতে যা যা কাঁচামাল লাগবে তার একটি লিস্ট নিচে দেওয়া হলো-

  • PVC resin
  • DOP
  • Stabilizers
  • Processing acids
  • Lubricants
  • Colors
  • Fillers

কত খরচ হতে পারে?

যেহেতু এটি একটি বড়ো ব্যবসা তাই এতে একটু খরচ বেশি এবং আপনারা যদি বেয়া বড়সড় করে এই ব্যবসা শুরু করতে চান তাহলে আরো একটু বেশি খরচ হয়ে যাবে।আপনাদের বোঝবার সুবিধার জন্য আমরা ৩টি ভাগে খরচ ভাগ করে দিয়েছি-

বিল্ডিং এবং জায়গার খরচ

যেহেতু এটি একটি বড়ো মাপের বিসনেস তাই এতে জাইগাও একটু বোরো লাগে।এতে আপনাদের প্রায় 3000-4000 square feet জায়গা লাগতে পারে।যার দাম আপনাদের এলাকার ওপর নির্ভর করছে, যদি আপনার নিজের জায়গা থেকে থাকে তাহলে আরো ভালো।আর যদি না থাকে তাহলে প্রায় 3.5 lakh থেকে 5 lakh টাকা অবধি পড়তে পারে।

মেশিন এবং কাঁচামালের খরচ

সমস্ত রকম মেশিন এবং অন্যান্য যাবতীয় মেটেরিয়াল কিনে নিয়ে প্রথম বার ছোট করে আপনাদের ব্যবসা শুরু করতে লাগতে পারে প্রায় 7 থেকে 10 লক্ষ টাকা।এবং যদি আপনারা এই ব্যবসাটি একটু বড়ো করে শুরু করতে চান তাহলে আপনাদের লাগতে পারে প্রায় 35 থেকে 40 লক্ষ টাকা।আপনারা প্রথমে ব্যবসাটি ছোটো আকারে শুরু করে দেখতে পারেন।

বিদ্যুৎ এবং জলের খরচ

এই বিসনেস-এ বিদ্যুৎ এবং জল প্রচুর পরিমান ব্যবহার হয় তাই এর খরচও প্রচুর পরিমান আস্তে পারে আমরা যে পরিমান-এর মেশিন এবং অন্যান্য উপকরণ-এর হিসাবে আপনাদের খরচ আস্তে পারে প্রায় 1.6 থেকে 4 লক্ষ টাকা প্রজন্ত।

এই ব্যাবসার জন্য কি কি লাইসেন্স প্রয়োজন

  • এর জন্য লাইসেন্সের প্রয়োজন পড়েনা, শুধু আপনাদের প্রোডাক্টের গুণমানের জন্য বিআইএস এর সার্টিফিকেট নিয়ে রাখবেন যা আপনারা মার্কেটিংয়ে কাজে লাগাতে পারবেন। এছাড়াও এই সার্টিফিকেট খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
  • তাছাড়া আপনারা আপনাদের একটি কোম্পানি রেজিস্টার করে নিতে পারেন।
  • এবং আপনারা আপনাদের কোম্পানিকে যে নাম দেবেন তার একটি ট্রেডমার্ক অবসসই করিয়ে নেবেন।
  • এছাড়া আপনাদের ব্যাবসার ট্যাক্স নম্বর সংগ্রহ করে রাখবেন, যাতে কোনোরকম কোনো ঝামেলা না হয়।

কিভাবে বিক্রি করবেন?

একটি বড়ো প্রশ্ন যা আপনাদের মনে জগতে পারে সেটি হলো যে কিভাবে এই পাইপ গুলি বিক্রি করবেন কি ভাবে? তার অনেকগুলি উপায় আছে কারণ এই মুহূর্তে বাজারে এই পিভিসি পাইপ-এর প্রচুর ডিমান্ড রয়েছে।বিশেষ করে সরকারি কনস্ট্রাকশন এলাকা-গুলিতে।

বেশকিছু ধরণের পাইপ-এর একটু বেশি ডিমান্ড রয়েছে যেমন- PVC wiring pipe, PVC plumbing pipe এবং uPVC ও CPVC pipe, আপনারা এই ধরনের পাইপ তৈরী করতে পারেন।তাছাড়া আপনারা টেলিভশন-এ বিজ্ঞাপন দিতে পারেন।

লাভ কত হতে পারে?

আপনারা যদি এই ব্যবসা ছোটো করেও শুরু করেন তাহলেও আপনারা প্রতি মাসে ১.৫ থেকে ২ লক্ষ টাকা আই করতে পারেন।যদি আপনারা আপনাদের পাইপ-এর মার্কেটিং এবং সেলিং ভালো ভাবে করতে পারেন তাহলে ২.৫ থেকে ৫ লক্ষ টাকা প্রজন্ত আই করতে পারবেন।

আর যদি আপনারা বড়ো আকারে এই ব্যবসা শুরু করেন তাহলে আপনাদের মাসিক আই হতে পারে ৫ থেকে ১০ লক্ষ টাকা প্রজন্ত।

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।